"> বিমানের টিকিট বিক্রির বড় ব্যবসা, অল্প পুঁজিতে – bangla
  1. admin@uddoktasomachar.com : admin12 :
বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৭:৩৮ অপরাহ্ন

বিমানের টিকিট বিক্রির বড় ব্যবসা, অল্প পুঁজিতে

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৪৩ Time View

সময়ের প্রয়োজনে বদলে যাচ্ছে কর্মক্ষেত্রও। চাকরি নামের সোনার হরিণের পেছনে ছুটে ব্যর্থ হয়ে অনেকেই হয়ে উঠছেন উদ্যোক্তা। তবে কীভাবে উদ্যোক্তা হবেন আর কোন বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু করলে সফল উদ্যোক্তা হওয়া যায় সে বিষয়ে অনেকেরই কোনো ধারনা নেই। অনেকেই মার্কেট বিশ্লেষণ না করে উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন দেখতে গিয়ে পুঁজি হারিয়ে ফেলছেন।

কেউবা বড় পুঁজির অভাবে উদ্যোক্তা হতে সাহস পাচ্ছেন না। যারা স্বল্প পুঁজিতে সময় উপযোগী বড় ব্যবসা করতে চান তাদের জন্য আদর্শ কর্মক্ষেত্র হতে পারে দেশ বিদেশের এয়ার টিকেট বিক্রি করা। মানুষ এখন প্রচুর ভ্রমণ করছে। সহজলভ্য এবং দ্রুত সময়ে পৌঁছে যাওয়া যায় বলে মানুষ এয়ার ট্রিপে যেতে পছন্দ করছেন। আগামীদিনে এ ক্ষেত্রে ব্যাপক সম্ভাবনা বাড়বে। তাই এখনই সময় রাজকীয় এয়ার টিকেট ব্যবসা শুরু করা। লিখেছেন আব্দুর রাজ্জাক

এয়ার টিকেট ব্যবসা কতটা সম্ভাবনাময়: দিন দিন ভ্রমণপিপাসু মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। বাংলাদেশে বিদেশি পর্যটকের সংখ্যা না বাড়লেও দেশের অভ্যন্তরীণ পর্যটন খাতে এক নীরব বিপ্লব এসেছে। বিভিন্ন দেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপন হওয়ায় এখন প্রচুর মানুষ বিদেশে ঘুরতে যাচ্ছে। সেসঙ্গে ব্যবসায়িক কাজে বিদেশে যাওয়াও প্রচুর বেড়েছে।

এ চাহিদার কথা মাথায় রেখে দেশে এখন দুই হাজারের বেশি ট্রাভেল এজেন্সি কাজ করছে। আর প্রায় সহস্রাধিক লাইসেন্সপ্রাপ্ত হজ এজেন্সি রয়েছে। বাংলাদেশে প্রতি মাসে ১৬ শত কোটি টাকার এয়ার টিকেটের ব্যবসা হয়।

কারা এ ব্যবসায় আসতে পারেন: আপনি যদি ভ্রমণ প্রিয় হন তাহলে একজন ট্রাভেল এজেন্ট হিসেবে নিজের ক্যারিয়ার গড়ার কথা ভাবতে পারেন। একজন ট্রাভেল এজেন্ট ভ্রমণ বিষয়ে পরামর্শ দেন, ট্রাভেল প্যাকেজ তৈরি করেন, কোথায় কোন সময় বেড়ানো যায় ও কেমন খরচ এসব বিষয়ে খোঁজ-খবর রাখেন, রিজার্ভেশন এবং ভিসার ব্যবস্থা করেন। এখন মানুষ অনেক বেড়াতে পছন্দ করেন। আগের তুলনায় পারিবারিক ট্যুর, বন্ধুদের সঙ্গে বেড়ানো এমনকি একা ঘুরতে যাওয়া মানুষের সংখ্যা বাড়ছে।

এখানে কী ধরনের কাজ করতে হয়: যে কোনো প্রকার টিকেট ও হোটেল বুকিং, ক্যান্সেল, রিফান্ড করা, টিকিট ইস্যু সংক্রান্ত যে কোনো ডকুমেন্ট সংরক্ষণ করা। গ্রাহকদের কাছ থেকে সময় মত অর্থ বুঝে নেয়া, গ্রাহকসেবা নিশ্চিত করা ও গ্রাহকদের সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখা, গ্রাহকদের যেকোনো অভিযোগের সুরাহা করা, গ্রাহকদের সময় ও বাজেট অনুযায়ী ট্যুরিস্ট ডেসটিনেশন ও ট্যুর প্যাকেজ সম্বন্ধে ধারণা দেয়া, গ্রাহকদের ভিসা সম্পর্কিত ব্যাপারে সাহায্য করা, এয়ারলাইন্স কোম্পানি ও হোটেলগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক রাখা এবং তাদের বিভিন্ন অফার সম্পর্কে আপটুডেট থাকা। দৈনিক, সাপ্তাহিক ও মাসিক সেলস রিপোর্ট তৈরি করা।

কোথায় শিখবেন, কী শিখবেন: যারা এ ব্যবসায় আসতে চান তারা ট্রাভেল প্ল্যানিং কোর্স করতে পারেন। এখন বিভিন্ন জায়গায় ট্রাভেল প্ল্যানিং কোর্স চালু আছে। এখানে রিজার্ভেশন সিস্টেম, ট্রাভেলের নিয়মকানুন (দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক), মার্কেটিং এসব বিষয়ে জানতে পারবেন। অনলাইনেও অনেক ট্রেনিং কোর্স পাবেন, যা আপনাকে সহযোগিতা করবে।

এয়ার টিকেট ব্যবসার সব সাপোর্ট এক জাগায়: এয়ার টিকেট ব্যবসা করার জন্য এয়ারলাইন্সগুলোর সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ থাকলে ভাল। কিন্তু নতুন উদ্যোক্তাদের সেখানে পৌঁছা বেশ কঠিন।

এ ছাড়াও নিজস্ব ওয়েবসাইটে এয়ারলাইন্সের এপিআই (এয়ারলাইন্সের টিকেট বিক্রির সিস্টেম নিজের ওয়েবসাইটে থাকার সিস্টেম) বসানোর প্রক্রিয়া সময় ও প্রচুর অর্থসাপেক্ষ ব্যাপার। এসব নানান জটিলতাকে পানির মতো সহজ করে দিয়েছে দেশের শীর্ষ এয়ার টিকেট বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ২৪ টিকেট ডটকম। এজেন্ট হিসেবে তাদের ওয়েবসাইটে লগইন করলেই সেখানে শুধুমাত্র লগইন করা এজেন্টের তথ্য দেখা যাবে।

তথ্যসূত্র: ভোরের কাগজ

নিউজটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved © 2019 bdwebs.com
Theme Customization By onlinechannel.Com